Law to Justice Case Analysis,Uncategorized মহামান্য হাইকোর্ট ২০১০ সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেত্রাঘাত নিষিদ্ধ করে

মহামান্য হাইকোর্ট ২০১০ সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেত্রাঘাত নিষিদ্ধ করে

মহামান্য হাইকোর্ট ২০১০ সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেত্রাঘাত নিষিদ্ধ করে আদেশ দেন। সে সাথে Corporal punishment এর একটি টেকনিক্যাল ও ওপেন সংজ্ঞা দিয়ে এই সাজা নিষিদ্ধ করেন।

ব্যক্তিগত জীবনে আমি অনেক জায়গায় থেকেছি। যাদেরকেই জিজ্ঞেস করেছি যে পড়াশোনা ছেড়ে ছিলেন কেন? তাদের ৯৫% বলেছেন অমুক শিক্ষকের গণিত করতে পারি নাই তাই পিটিয়েছে তারপর আর স্কুলে যায়নি, অমুক শিক্ষকের ইংলিশ পড়া পড়ে যায় নাই তাই পিটিয়েছে তারপর আর স্কুলে যায়নি। দারিদ্রতা বা অন্য কোন কারণে পড়াশোনা ছেড়েছেন এমন সংখ্যাটা খুব কম।

আজ ১২ বছর পর বেত্রাঘাত নেই, শিশুরা শিক্ষা থেকে ঝরে পড়া সংখ্যাটাও কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে।

রায়টি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Post

loan

ব্যাংক ও অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে এসএমই ঋণ পেতে যে সকল ডকুমেন্ট লাগবে:ব্যাংক ও অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে এসএমই ঋণ পেতে যে সকল ডকুমেন্ট লাগবে:

বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে এসএমই সহ যেকোন ধরনের ঋণ পাওয়া খুবই জটিল একটি বিষয়। মামা, চাচা আর টাকা না থাকলে তো কথাই নাই। তবে ব্যবসায়ীরা সৎ টাকায় হালাল উপার্যন করতে ব্যাবসা করেন,

law to justice | defamation

মানহানি নিয়ে পর্যবেক্ষণ ও সামাজিক বাস্তবতা:মানহানি নিয়ে পর্যবেক্ষণ ও সামাজিক বাস্তবতা:

মানহানি কি? Penal Code 1860 সালের ধারা ৪৯৯ তে মানহানি সম্পর্কে বিধান উল্লেখ করা হয়েছে।http://bdlaws.minlaw.gov.bd/act-11/section-3540.html যদি কোন ব্যক্তি কোন শব্দ সেটি মৌখিক হতে পারে অথবা পড়বে সে উদ্দেশ্যে, অথবা এমন