Law to Justice Uncategorized জিডি করার পদ্ধতি । জিডি করার উপকারিতা

জিডি করার পদ্ধতি । জিডি করার উপকারিতা

GD

কি কারনে জিডি করবেনঃ-


১/ কেউ যদি আপনাকে হুমকি দেয়।
২/ কোন কিছু হারিয়ে গেলে যেমন (ক) মোবাইল ফোন, (খ) সার্টিফিকেট (গ) মুল্যবান দলিল-পত্র, (ঘ) প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, (ঙ) জাতীয় পরিচয় পত্র, (চ) পাসপোর্ট, (ছ) চেকবই, (জ) লাইসেন্স ইত্যাদি আরো গুরুত্বপূর্ণ যেকোন জিনিস হারিয়ে গেলে জিডি করতে হয়। আর তাছাড়া এসব কাগজ নতুন তুলতে গেলেও জিডির কপি লাগে।
৩/ কোন ব্যক্তি অপরাধ করার আশঙ্কা দেখা দিলে।
৪/ কোন ব্যক্তি হারিয়ে গেলে।
৫/ অনাকাঙ্ক্ষিত কোন ঘটনা ঘটতে পারে এমন পূর্বাভাস পেলে।
৬/ কেউ আপনার উপর হামলা করতে পরে এমন মনে হলে।
৭/ আপনার সম্পত্তির ক্ষতি হতে পারে এমন সম্ভাবনা দেখা দিলে।
৮/ কোন অপরাধের বিষয়ে থানায় জানাতে।
৯/ কেউ আপনার বা আপনার পরিবারের ক্ষতি করতে পারে এমন সম্ভাবনা থাকলে।
১০/ কোন অপরাধ প্রতিরোধ করতে থানায় জানাতে।

কোথায় জিডি করবেনঃ-
জিডি সাধারণত আপনার নিজের এলাকার থানায় করতে হয়।অর্থাৎ আপনি যে থানার আঞ্চলিক এখতিয়ার মধ্যে বসবাস করেন সেই থানাতেই করতে হবে।তবে আপনার কোন কিছু যদি হারিয়ে যায় অন্য কোন থানার সীমানার মধ্যে তাহলে যে থানার সীমানায় হারিয়ে গেছে সেই থানায় জিডি করতে হবে।

জিডি করার নিয়মঃ-

জিডি কেন করবেন কলামে উল্লেখিত যে কোন ঘটনা যদি আপনার সাথে ঘটে তাহলে আপনার প্রথম কাজ হচ্ছে আপনি যে এলাকায় বসবাস করেন বা কোন কিছু হারিয়ে গেলে যে থানা সীমানার মধ্যে হারিয়ে গেছে ঐ থানায় জিডি করার উদ্দেশ্যে যাওয়া।তারপর চাইলে আপনি নিজে একটা আবেদন লিখতে পারেন বা যদি না পারেন তাহলে থানার সার্ভিস ডেলিভারি অফিসারের সাথে যোগাযোগ করুন এবং তাকে অনুরোধ করুন যাতে সে একটা আবেদন লিখে দেয়।তার সাহায্যে একটা জিডির আবেদন লিখে নিন এতে তাকে কোন প্রকার টাকা পয়সা দিতে হবে না।এরপর এই আবেদন পত্রটি থানায় ডিউটিতে থাকা ডিউটি অফিসারকে দিন।ডিউটি অফিসারই আপনার জিডি নথিভুক্ত করবেন।জিডির সাধারণত দুইটি কপি করা হয়, একটি কপি থানায় সংরক্ষণের জন্য এবং অপর কপি আপনাকে দেওয়া হবে।ডিউটি অফিসার আপনার জিটি টা একটি ডাইরিতে জিডির নম্বর সহ লিপিবদ্ধ করবেন। জিডির একটি কপিতে জিডির নম্বর, সীলমোহর, স্বাক্ষর দিয়ে আপনাকে দিয়ে দিবে।জিডি হওয়ার পর জিডির একটি কপি ডিউটি অফিসার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে পাঠাবেন।থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা যদি দেখেন ঘটনাটা আমলযোগ্য তাহলে সাথে সাথে ব্যবস্থা নিবেন।

জিডিতে কি কি উল্লেখ করতে হবেঃ-
প্রথমেই বলি জিডি একটা আবেদন পত্র।একটি আবেদন পত্রে যে বিষয়গুলো উল্লেখ করা হয় ঐ বিষয়গুলোই উল্লেখ করতে হবে।
১/ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর লিখতে হবে।
২/ থানার নাম এবং জেলার নাম।
৩/ বিষয়ে লিখতে হবে আপনি যে বিষয়ে জিডি করতে চাচ্ছেন সেই বিষয়।
৪/ আপনি কেন জিডি করছেন তার বিস্তারিত বর্ণনা দিতে হবে, ঘটনা, স্থান, কাল উল্লেখ করতে হবে।যার বিরুদ্ধে জিডি করতেছেন তার নাম,পিতা-মাতার নাম,ঠিকানা, বয়স ইত্যাদি উল্লেখ করতে হবে।
৫/ শেষে আবেদনকারীর নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর দিতে হবে।

অনলাইনে জিডি করার নিয়মঃ-

আপনি যদি বিদেশ থাকেন বা আপনার যদি থানায় যেতে কোন সমস্যা হয় কিন্তু আপনার জিডি করা প্রয়োজন অথবা এমন কোন জিডি করতে চান যেসবের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন নেই তাহলে আপনি অনলাইনে জিডি করতে পারবেন।অনলাইনে জিডি করলে আপনার ইমেইলে বা এসএমএস এর মাধ্যমে জিডির নম্বর পাঠিয়ে দেওয়া হবে।
* ই-মেইলঃ- bangladesh@police.gov.bd
*ফ্যাক্সঃ- +৮৮০-২-৯৫৫৮৮১৮
*ওয়েব সাইটঃ- http://www.police.gov.bd
উক্ত ওয়েব সাইটে গিয়ে Citizens help request এ ক্লিক করতে হবে।তারপর জিডি করতে হবে।

নমুনা জিডি কপি

২২-১০-২০২০
বরাবর
ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
টুঙ্গি পশ্চিম থানা, গাজীপুর।
বিষয়ঃ সাধারণ ডায়েরি ভুক্তির জন্য আবেদন।
জনাব,
আমি নিম্ন স্বাক্ষরকারী নামঃ মোঃ মনিরুজ্জামান বয়সঃ ২২ বছর, পিতাঃ মোঃ হায়দার আলী।
ঠিকানাঃ আরিচপুর, টুঙ্গি, গাজীপুর।

এই মর্মে জানাচ্ছি যে গত ২০-১০-২০২০ তারিখ সকাল ১০ঃ২৪ মিনিটে টুঙ্গি ইসতেমা ময়দানের পাশ থেকে আমার নিম্নবর্ণিত মোবাইল ফোনটি হারিয়ে গেছে।

বর্ণনা : কালো কালারের স্যমসাং মোবাইল ফোন।মডেলঃ- স্যমসাং জে৭।
আইএমইআই নম্বরঃ- ৮২৫১৭১৯০**২৮৯৭৯

অতএব, বিষয়টি থানায় অবগতির জন্য সাধারণ ডায়েরিভুক্ত করার অনুরোধ করছি।

বিনীত
নাম:মোঃ মনিরুজ্জামান
ঠিকানা:আরিচপুর,টুঙ্গি,গাজীপুর।
মোবাইল নম্বর:০১৮৪০**১৫০৯

Writer:

Nayem H Ovi

Founder and Chief of Law to Justice

Email: nayemh2111@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Post

ফাঁসির আসামি নিজ এলাকার তাই বেঞ্চ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করলেন সর্বোচ্চ আদালতের এক বিচারপতিফাঁসির আসামি নিজ এলাকার তাই বেঞ্চ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করলেন সর্বোচ্চ আদালতের এক বিচারপতি

একটি হত্যা মামলার আপিল শুনানির জন্য গঠিত বেঞ্চ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান ননী। ওই মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি পাশের গ্রামের হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

জমি কেনার পূর্বে করণীয় পোস্ট – ০২জমি কেনার পূর্বে করণীয় পোস্ট – ০২

জমি কেনার পূর্বে করণীয় পোস্ট – ০২ মালিকানা স্বত্বের তদন্ত ও তল্লাশী সম্পত্তি ক্রয়-বিক্রয়ের ক্ষেত্রে ক্রেতার অবশ্য কর্তব্য হচ্ছে ক্রয়েচ্ছু সম্পত্তির স্বত্বের তদন্ত ও তল্লাশী। স্থাবর সম্পত্তির ক্ষেত্রে বিক্রেতার নিকট